Categories
যাপিত জীবন

ভাই বোন: আলাপন

আমি আর ভাইয়া সব সময় এক টেবিলে পড়তে বসতাম। নিজেদের মধ্যে ঝগড়াঝাটি, মারামারি, কাটাকাটি যাই থাকুক না কেন দিন শেষে একসাথে পড়তে বসলে আবার গুটুর গুটুর করে গল্প-স্বল্প করতাম। সারাদিন কি করেছি, কি খেয়েছি, বন্ধুদের সাথে কি কি ক্রাইম করা হয়েছে ইত্যাদি (ক্রাইম মানে গল্পের বই পড়া, আদান প্রদান করা, যেটা আপাত দৃষ্টিতে নিষিদ্ধ ছিল বাসায়)। যদিও পড়াশোনার সময় আলাপচারিতায় আম্মু এসে ঝটিকা অভিযান চালাতো, গল্পের বই পড়লে বাজেয়াপ্ত করত। তাই বেশ রয়ে সয়ে আমাদের আলাপচারিতা চালাতে হতো। ভাই বোন নিজেদের মধ্যে গল্প-স্বল্প না করলে কি হয়!!! এটা কি আর আম্মুরা বুঝে??!!

এখন ঘটনা হইলো ছানাপোনার মা হয়ে অনেক বছর পর দেখি, আমর দুই পুত্রকন্যা পাশাপাশি টেবিলে পড়তে বসে। তারাও পড়তে বসে গুটুর গুটুর আলাপ করতে থাকে। প্রায় পাঁচ বছর বয়সী পুত্র এবং সাড়ে ছয় বছর বয়সী কন্যার নিজেদের কি এত কথা থাকে, সেটাই তো বুঝি না। তারপরও এসে এসে বাগড়া দেই। তাদের ছোট ভাই ও বেশ ঝামেলা করে এই সময়।

তাদের গল্প-স্বল্প এর যন্ত্রনায় তারা দিনে একটা ঘন্টাও বসে পড়াশোনা করতে পারেনা। আমিও বেশি একটা চাপা চাপি করতে পারিনা। নিজের ছোটবেলার কথা মনে পড়ে। আমার মনে হয় এই গুটুর গুটুর আলাপ ও তাদের সুন্দর সম্পর্ক ও বেড়ে ওঠার একটা অংশ।

মাঝে মাঝে তাই ওদের মধ্যে প্রতিযোগিতার আয়োজন করি। কে আগে লেখা শেষ করতে পারবে বা পড়া শেষ করতে পারবে, এই টাইপের। অবশ্যই সব সময় নায়রাহ আগে শেষ করে। কিন্তু পাশাপাশি নাওঈদেরও লিখাটা বা পড়া একটুখানি হয়ে যায়। আর দুধভাত নুবাঈদ আশেপাশেই থাকে, বই ছিঁড়তে, পেন্সিল, রাবার হারাতে ইত্যাদি ইত্যাদি।

#happyparenting