Categories
যাপিত জীবন

বিচিত্র জীবন

যা করতে চাই

অনেকদিন ধরে আয়োজন করে কোথাও বেড়াতে যাওয়া হয়না। বেড়াতে যেতে ইচ্ছে করে। খোলা আকাশের নিচে ছাদের উপরে বসে দুপা ঝুলিয়ে মুচমুচ করে কিছু চাবাতে ইচ্ছে করে। প্রাণের বান্ধুদের সাথে হা হা হি হি করতে মন চায়। শুধুই তার সাথে রিক্সায় চড়ে ঘুরতে পরান আনচান করে। শপিং এ গিয়ে দুহাত ভর্তি করে কেনাকাটা করা দরকার। ইত্যাদি সহ আরো কতো কিছু……

আমি আসলে যা করি,
সকালে নাস্তা বানাই, ক্লাস নেই, ক্লাসের ফাঁকে ফাঁকে ছানাপোনা,খানাদানা সামলাই। আবার দুপুরের রান্না, আবার তাদের গোসল, খানাদানা, ঘুম পাড়ানো। এক ফাঁকে সে এবং তারা সহ বুড়িগঙ্গার তীরে হেঁটে আসা, সাথে বাজার করে আনা। আবার নাস্তা বানানো, খানাদানা। আবার রাতের খাবার।
আর এই পুরো সময় নুবাঈদের সার্ভিস প্রোভাইডার এর ক্লান্তিকর কাজ তো আছেই, সাথে চুল টানা, কামড়, খামচি ফ্রি।

যা করা বাকি…..
অনেক গুলো প্রশ্ন তৈরি করা বাকি। ডেডলাইন আর দু’দিন পর। শরনার্থী শিবিরের মতো এলোমেলো ঘর ঠিক করা বাকি। নিজস্ব কিছু কাজ, পড়াশোনা হয়না অনেক দিন ধরে। বড় পুত্র কন্যার সাথে সময় নিয়ে বসা যাচ্ছে না। তারা রূপনগর এর রাজকন্যা আর পুলিশ ম্যান হয়ে মনের আনন্দে দিন পার করছে। কঠিন শাসন করা দরকার।

দু একটা চটকানা সপ্তাহে একবার দিব ভাবছি প্রয়োজন মতো। কিন্তু তাদের বাবা চিৎকার করে একটা ধমক দিলে আমারি চোখে পানি চলে আসে!!!

জীবন বড়ই বিচিত্র।