Categories
অভিজ্ঞতা

অঘটন

নায়রাহ নুবাঈদকে বেশ আদর করে। বড় বোন হিসেবে সব সময় কোলে নেয়ার চেষ্টা করে। ওর কোলে নুবাঈদকে দেয়ার ক্ষেত্রে আমরা খুব সতর্ক থাকি, যাতে করে সে কোলে নিয়ে বেশি দূর না যায় অথবা বিছানাতে বসে থাকে।
আজ সকালে বাচ্চারা তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে উঠে গেছে। আমার তখনও ঘুম কাটেনি। মাঝরাতে জেগে থাকা মা আমি। ঘুমে ঢুলছি নুবাঈদকে কোলে নিয়ে। এই সুযোগে নায়রাহ এসে ছোটজনকে কোলে নিয়ে ড্রয়িং রুমে চলে গেলো এবং তাকে সোফাতে বসিয়ে টিভি অন করতে গেল । ফলাফল সোফা থেকে পড়ে গেছে এবং কপালে একটা গোল আলু গজিয়েছে।

উপলব্ধি:
১. বাচ্চাদের কখনো একটু বড় বাচ্চাদের হাতে সুপারভিশন ছাড়া দিতে নাই । কেননা ওরা ও বেশ ছোট।
২. নুবাঈদের মাথায় সাথে সাথে ক্রমাগত পানি ঢালা হয়েছে, পানি পট্টি দেওয়া হয়েছে । আলহামদুলিল্লাহ, কপাল ফোলা খুব দ্রুত কমে গেছে। তবে বাচ্চাটা বেশ ব্যথা পেয়েছে । এবার সে প্রথমবার পড়ে গিয়ে এত ব্যথা পেলো!!
৩. এই মূহুর্তে নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করেছি নায়রাহকে পিট্টি না দিয়ে। কেননা পৌনে ছয় বছরের বাচ্চার এখনো সামর্থ্য হয়নি ছোট ভাইকে দেখার। তবে কান ধরিয়েছি, যাতে জোর করে আর নুবাঈদকে কোলে না নেয়। ( সেদিন তার মামার কোল থেকে নুবাঈদকে নিতে না পেরে রাগ করেছিল)
৪. বাচ্চাদের মায়েদের সব সময় সজাগ দৃষ্টি রাখতে হয়। একটু আরাম বেশি করা মানে অন্য দিকে কোন ঘটনা ঘটতে চলেছে!!