Categories
অভিজ্ঞতা

হসপিটাল ডায়েরি ১


১ম দিন-
২৩ ডিসেম্বর , ১৯; ডাক্তার এপয়েন্টমেন্ট ছিল । ডাক্তার দেখে ২৯ ডিসেম্বর হাসপাতালে ভর্তি হতে বলল। তখন আমার ৩৬ সপ্তাহ ছিল। তাই ডাক্তারকে বলছিলাম জানুয়ারির ২/৩ তারিখের দিকে ভর্তি হলে হবে না? তিনি বললেন সেটা আপনাদের রিস্ক। আমরা কিছু জানিনা। ওই সময় সংসারের কাজ , অফিসের কাজ মিলিয়ে এত প্রেসার পড়ে গিয়েছিল , যে বেবি মুভমেন্ট খুব বেশি কমে গিয়েছিলো । ফলাফলে ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম । ২৯ তারিখে আম্মু ঢাকা আসার পর ৩০ তারিখে হাসপাতাল গেলাম এবং আমাকে না খেয়ে আসতে বলেছিল । তাই ভেবেছিলাম ওইদিনই অপারেশন করে ফেলবে এবং আমার কোন ধরণের জটিলতা ছিল না । জাস্ট এটা ছিল তৃতীয় সিজার। হাসপাতালে ভর্তি হলাম । ডাক্তারের জন্য অপেক্ষা করতে লাগলাম। ডাক্তার বলল ২৯ তারিখে কেন ভর্তি হইনি ! তাহলেতো আজি সিজার করে ফেলত !! সেদিন ডাক্তারের ব্যস্ততা থাকার কারণে অপারেশন করেনি। ভর্তি হয়েছিলাম শুধু । সারাদিন বিশ্রামে থেকে টের পেলাম বেবি মুভমেন্ট আগের মত নরমাল । ঘনঘন মুভ করছে , যেটা গত ২/৪ দিনে করেনি । তাই আমরা ভয় পেয়ে হাসপাতালে চলে এসেছি ।এখানে প্রথম দিনে দুই বেলা খাবারের ছবি দেয়া আছে।